বাল্যরোগ চিকিৎসা মাইলফলক শিশুর যত্ন

স্ক্রিনিং বিশ্লেষণ (Screening Explained)

স্বাস্থ্যবান শিশু (হেলদি চাইল্ড) প্রোগ্রামের আওতায় আপনার শিশুর জন্মের পর প্রথম কয়েক বছর বেশ কয়েকটি পরীক্ষা করা হবে, এবং তার স্বাস্থ্য বিষয়ক বিভিন্ন তথ্য বিশ্লেষণ ও মূল্যায়ন করা হবে। এই বিভাগে আপনি কী কী জিনিস পরীক্ষা কখন করা হবে তা জানতে পারবেন।

যে কোন ধরনের পরীক্ষার ব্যাপারে আরও তথ্য জানতে বা আপনার শিশুর বেড়ে ওঠা নিয়ে কোন কারনে চিন্তিত হলে স্বাস্থ্য পরিদর্শকের সঙ্গে কথা বলুন। আপনি তাদেরকে কোন পেডিয়াট্রিশিয়ান (শিশু স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ) রেফার করার কথা বলতে পারেন।

প্রথম দিন থেকে ১ মাস পর্যন্তঃ নবজাতকের শ্রবন ক্ষমতা

শিশুর শ্রবণ ক্ষমতা ঠিক আছে কিন তা জানার জন্য এই পরীক্ষাটি করা হয়। বাচ্চা হওয়ার পর হাসপাতাল থেকে বাসায় যাওয়ার আগেও এটি করা হতে পারে, আবার আপনার বাড়িতে বা ক্লিনিকে কোন স্বাস্থ্য পরিদর্শকও পরীক্ষাটি করতে পারেন।

এক থেকে তিন দিনঃ নবজাতকের শরীর পরীক্ষা

এ সময় শিশুর হৃৎপিণ্ড, নিতম্ব, চোখ (এবং ছেলে হলে অণ্ডকোষ) পরীক্ষা করা হবে। এর সাথে সাথে সারা শরীরের অন্য কোথাও কোন সমস্যা আছে কিনা তাও পরীক্ষা করা হবে। পরীক্ষাগুলো একজন শিশু বিশেষজ্ঞ বা বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত নার্স করতে পারেন। এগুলো আপনি হাসপাতাল ছেড়ে বাড়ি আসার আগে না করলেও হবে।

পাঁচ থেকে আট দিনঃ নিউবর্ন ব্লাডস্পট (newborn bloodspot)

শিশুর ফেনিলকেটোনিউরিয়া (phenylketonuria), কঞ্জেনিটাল হাইপোথাইর‍য়ডিজম (hypothyroidism), সিস্টিক ফিব্রোসিস এবং সিকল সেল ডিজর্ডার (sickle cell disorders) পরীক্ষার জন্য শিশুর গোড়ালিতে ফুটো করে রক্ত সংগ্রহ করা হয়। কোথাও কোথাও এর সাথে MCADD (এক ধরনের মেটাবলিক ডিজঅর্ডার)-এর পরীক্ষাও করা হয়। এই পরীক্ষাগুলো বাংলাদেশে তেমন প্রচলিত নয়।

ছয় থেকে আট সপ্তাহঃ শরীর পরীক্ষা

এ সময় শিশুর হৃৎপিণ্ড, নিতম্ব, চোখ (এবং ছেলে হলে অণ্ডকোষ) পরীক্ষা করা হবে। এর সাথে সাথে সারা শরীরের অন্য কোথাও কোন সমস্যা আছে কিনা তাও পরীক্ষা করা হবে। আপনার শিশুর ওজন পরীক্ষা এবং সাধারন ভাবে তার শরীর পরীক্ষা করা হবে। আপনার শিশুকে বুকের দুধ দিচ্ছেন না কি ফিডারে দুধ খাওয়াচ্ছেন তাও জানতে চাওয়া হবে।

টিকা

শিশুর জন্মের পর পরই বিসিজি টিকা দেয়া হবে, তারপর ৬ সপ্তাহ, ১০ সপ্তাহ, ১৪ সপ্তাহ ও ৯ মাস বয়সে অন্যান্য টিকা দেয়া হবে।

ছয় থেকে আট মাসঃ শ্রবণ শক্তির পরীক্ষা

যদি জন্মানোর পর পর আপনা শিশুর শ্রবণ ক্ষমতার পরীক্ষা না করা হয় তাহলে এসময় তার উপর একটি ডিস্ট্র্যাকশন টেস্ট (distraction test) করা হবে।

৮ থেকে ৩৬ মাস বয়সের মধ্যেঃ সাধারন রিভিউ

৮ থেকে ১২ মাস বয়সের মধ্যে একবার এবং দুই থেকে আড়াই বছর বয়সের মধ্যে আরেকবার সাধারনভাবে আপনার শিশুর স্বাস্থ্য ঠিক আছে কিনা তা পরীক্ষা করা হবে।

৪ থেকে ৫ বছর বয়সের মধ্যেঃ স্কুলে ভর্তির জন্য স্বাস্থ্য পরীক্ষা

এ সময় শিশুর দৃষ্টিশক্তি ও শ্রবণশক্তি পরীক্ষা করা হবে এবং তার উচ্চতা ও ওজন মাপা হবে। আপনার শিশুর একটি সাধারণ স্বাস্থ্য পরীক্ষাও এসময় করা হতে পারে।

About the author

Maya Expert Team