এসটিআই এসটিডিএস গনোরিয়া

গনোরিয়া চিকিৎসা

গনোরিয়ার চিকিৎসা স্বল্প মেয়াদী অ্যান্টিবায়োটিক দ্বারা করা হয়।

চিকিৎসার প্রয়োজন হয় যদিঃ

পরীক্ষায় দেখা যায় যে আপনার গনোরিয়া আছে

আপনার গনোরিয়া হওয়ার অনেক সম্ভাবনা আছে , এমনকি যদিও আপনার পরীক্ষার ফলাফল এখনো আসেনি

যদি আপনার জীবনসঙ্গীর বা যৌন সঙ্গীর গনোরিয়া থাকে

বেশীরভাব ক্ষেত্রে, চিকিৎসায় শুধুমাত্র একটি অ্যান্টিবায়োটিক ইনজেকশন ব্যবহৃত হয় (সাধারনত নিতম্বে অথবা উরুতে দেয়া হয়) এবং এর আগে মুখে শুধুমাত্র একটি অ্যান্টিবায়োটিক ট্যাবলেট খাওয়ানো হয়। অনেকসময় ইনজেকশনের বদলে অন্য আরেকপ্রকার অ্যান্টিবায়োটিক ট্যাবলেট দেয়া হয়, যদি আপনি ইনজেকশন পছন্দ না করেন।

যদি আপনার গনোরিয়ার কোন উপসর্গ থাকে, ওষুধ গ্রহনে কিছুদিনের মধ্যেই অবস্থার উন্নতি হবে, তবে যদি এটি শ্রোনীদেশে অথবা অন্ডকোষে সংক্রমিত হয়ে থাকে, সেক্ষেত্রে সম্পূর্ন ভাল হতে ২ সপ্তাহ পর্যন্ত সময় লাগতে পারে । গনোরিয়ার কারনে সৃষ্ট মাসিকের সমস্যা, যেমন দুই মাসিকের মাঝে রক্তপাত অথবা ভারী মাসিক, আপনার পরবর্তী মাসিকের সময়ই এর উন্নতি লক্ষ করবেন।

চিকিৎসার পর এক বা দু সপ্তাহ পর ফলো-আপ দরকার হবে, যাতে ডাক্তার পরীক্ষা করে বুঝতে পারেন আপনি সংক্রমণ থেকে সম্পূর্ণ মুক্ত হয়েছেন কিনা।

চিকিৎসাধীন অবস্থায় আপনার এবং আপনার যৌনসঙ্গীর যৌনমিলন থেকে বিরত থাকা উচিত, যাতে একজন থেকে অন্যজন পুনরায় সংক্রমিত হয়ে না পড়েন অথবা আপনাদের কাছ থেকে অন্য কারো মধ্যে সংক্রমণ ছড়িয়ে না পড়ে।

যদি চিকিৎসার পর আপনার সংক্রমন এর উন্নতি না হয় অথবা আপনি যদি মনে করেন আপনি আবারো সংক্রমিত হয়েছেন,  আপনার চিকিৎসকের সাথে যোগাযোগ করুন। আবারো চিকিৎসার প্রয়োজন হতে পারে অথবা অন্য কোন সমস্যা আছে কিনা তা সনাক্তকরনের জন্য আবারো পরীক্ষার প্রয়োজন হতে পারে।

যৌনসঙ্গী

গনোরিয়া খুব সহজেই যৌনমিলনের মাধ্যমে ছড়িয়ে পরে। যদি আপনার গনোরিয়া হয়, যাদের সাথে আপনার যৌন সম্পর্ক আছে তারা সবাই গনোরিয়ায় সংক্রমিত হতে পারেন। যার কারনে আপনার বর্তমান জীবনসঙ্গী এবং সাম্প্রতিক সময়ে যদি কার সাথে যৌনমিলন হয়ে থাকে, তাদের সকলের পরীক্ষা এবং প্রয়োজনে চিকিৎসা গ্রহন করা উচিত।

About the author

Maya Expert Team