ঘরোয়া প্রতিকার ব্যাথা-বেদনা

মচকে যাওয়া ও টান খাওয়া

Written by Maya Expert Team

বেশিরভাগ ক্ষেত্রে শরীরের কোন অংশ মচকে যাওয়া বা টান খাওয়ার চিকিৎসা আপনি PRICE টেকনিক ব্যবহার করে বাড়িতেই করতে পারবেন। নিজে নিজে যত্ন নেয়ার ক্ষেত্রে পরামর্শ সমূহঃ

● PRICE টেকনিক মানে হচ্ছে

১. নিরাপত্তা (Protection)– আহত স্থানটিকে আরো আঘাত থেকে বাঁচাতে, কোন ধরনের সাপোর্ট বা অবলম্বন ব্যবহার করুন। যেমন, গোড়ালিতে আঘাত পেলে, পা সুরক্ষিত থাকে এমন জুতো বা ফিতা দিয়ে বাঁধতে হয় এমন বুট ব্যবহার করুন।

২. বিশ্রাম (Rest) – যে ধরনের কাজ করতে গিয়ে আহত হয়েছেন তা করা বন্ধ রাখুন। আঘাত পাওয়ার পর প্রথম ৪৮ থেকে ৭২ ঘণ্টা কাজ বন্ধ রাখুন। ডাক্তার আপনাকে ক্রাচ ব্যবহার করার পরামর্শ দিতে পারেন।

৩. বরফ (Ice)– আঘাত পাওয়ার পর প্রথম ৪৮ থেকে ৭২ ঘণ্টা ভেজা তোয়ালেতে বরফ জড়িয়ে নিয়ে দিনের বেলা দু-তিন ঘণ্টা পর পর ১৫ থেকে ২০ মিনিট আঘাত পাওয়া স্থানটিতে লাগান। ঘুমানোর সময় বরফ লাগিয়ে রাখবেন না এবং সরাসরি চামড়ায় বরফ ঘসবেন না কারন এতে কোল্ড বার্ন (cold burn) হতে পারে।

৪. চাপ প্রয়োগ (Compression)– ফুলে যাওয়া এবং আহত জায়গাটির যে কোন ধরনের নড়াচড়া প্রতিরোধ করতে ব্যান্ডেজ ব্যবহার করে বা অন্য কোন উপায়ে (কাপড়ের পুটলি ব্যহার করে) চাপ প্রয়োগ করুন। আপনি ফার্মেসিতে পাওয়া যায় এমন ক্রেপ ব্যান্ডেজ (crepe bandage) বা সাধারন ইলাস্টিক ব্যান্ডেজ ব্যবহার করতে পারেন। এটি দিয়ে আহত জায়গাটি ভালোভাবে জড়িয়ে দিন তবে এমনভাবে বাঁধবেন না যাতে রক্ত চলাচল ব্যাহত হয়। ঘুমোতে যাওয়ার আগে ব্যান্ডেজটি খুলে রাখুন।

৫. তুলে ধরে রাখা (Elevation)– ফুলে যাওয়া কমাতে আহত জায়গাটি একটি বালিশের উপর রেখে উঁচু করে রাখুন। পায়ে ব্যাথা করলে বেশিক্ষণ পা নামিয়ে রাখা থেকে বিরত থাকুন।

● মচকানো বা টান খাওয়ার পর ৭২ ঘণ্টা HARM এড়িয়ে চলুন, অর্থাৎ তাপ (Heat), যেমন গোসলের গরম পানি, সেঁক দেয়া, ইত্যাদি; মদ (Alcohol) যার কারনে রক্তপাত ও ফোলা বৃদ্ধি পায় এবং সুস্থ হতে বেশি সময় লাগে; দৌড়নো (Running) বা যে কোন ধরনের ব্যায়াম, এবং মালিশ করা (Massage), যার ফলে রক্তপাত ও ফোলা বৃদ্ধি পেতে পারে- এগুলো এড়িয়ে চলুন।

● গোড়ালি মারাত্মকভাবে মচকে যাওয়া ছাড়া অন্যান্য ক্ষেত্রে মচকানো জায়গাটি (sprained joint) নিয়ে সচল থাকার চেষ্টা করুন। কারন আপনি সক্ষম হওয়া মাত্র যদি হাড়ের জোড়টি নাড়ানো শুরু করেন তাহলে দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবেন।

● মচকানো বা টান খাওয়া জায়গাটি ব্যাথা করলে প্রাথমিকভাবে প্যারাসিটামল খেতে পারেন। তাতে কাজ না হলে, ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে আরও শক্তিশালী ব্যাথা নাশক (painkillers) খেতে হতে পারে। মচকানো বা টান খাওয়া জায়গাটি ভাল হতে কত সময় লাগবে তা নির্ভর করে আঘাত কতটা মারাত্মক তার উপর। যদি হাড়ের জোড়টি দেখতে ভিন্ন রকম হয়ে গেছে মনে হয়, নাড়ানো কঠিন বা অসম্ভব বোধ করেন, অথবা যদি জায়গাটি অনুভূতিহীন হয়ে পড়ে বা সেখানে তীব্র যন্ত্রণা হয় তাহলে দেরি না করে ডাক্তার দেখান।

About the author

Maya Expert Team

Leave a Comment