অনিয়মিত মাসিক – চিকিৎসা

বয়ঃসন্ধিকালে অনিয়মিত পিরিয়ড সাধারণ বিষয় এবং এর জন্য চিকিৎসা তেমন প্রয়োজনীয় নয়

কখন আমার ডাক্তার দেখানো উচিৎ ?

আপনি ডাক্তারের সাথে কথা বলতে পারেন যদি আপনার পিরিয়ডে নিম্নে বর্ণিত পরিবর্তন গুলো লক্ষ্য করেনঃ

যদি আপনার খুব ভারী পিরিয়ড হয়, যদি আপনাকে ঘণ্টায় ঘণ্টায় অথবা দুই ঘণ্টায় প্যাড বা তুলার পট্টি পরিবর্তন করতে হয় অথবা প্যাড এবং তুলার পট্টি উভয়ই নিতে হয়।

যদি আপনার পিরিয়ড সাত দিনের বেশি থাকে।

যদি একবার পিরিয়ড হবার পর পরবর্তী পিরিয়ড ৩ সপ্তাহের মধ্যে শুরু হয়।

আপনার পিরিয়ডের সময় বেশি রক্তপাত হলে।

যৌনমিলনের পরে রক্তপাত হলে।

আপনার ডাক্তার আপনাকে আপনার পিরিয়ড, জীবনধারা এবং চিকিৎসা ইতিহাস সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করবে, যাতে আপনার অনিয়মিত পিরিয়ডের কারন সম্পর্কে জানা যায়।

আপনার অনিয়মিত পিরিয়ডের কারণের উপর নির্ভর করে যে কোন চিকিৎসা প্রয়োজন।

আপনার গর্ভ নিরোধ পদ্ধতিতে পরিবর্তন

আপনি সম্প্রতি একটি পদ্ধতির সাথে যদি মানিয়ে নেন এবং অনিয়মিত রক্তস্রাব যদি কয়েক মাসের মধ্যে নিষ্পত্তি না হয় তবে আপনার ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করে গর্ভ নিরোধ পদ্ধতিটি পরিবর্তন করুন।

যদি আপনি নতুন গর্ভ নিরোধ ওষুধ ব্যবহার শুরু করেন যা অনিয়মিত রক্তস্রাবের কারণ হয়, তবে অন্য ধরণের ওষুধ ব্যবহারের জন্য আপনাকে উপদেশ দেয়া হবে।

পলিসিস্টিক ডিম্বাশয় সিন্ড্রোম চিকিৎসা

বেশি ওজনের মহিলা যাদের পলিসিস্টিক ডিম্বাশয় সিন্ড্রোম আছে, এই লক্ষণ ওজন কমিয়ে উন্নতি করা যেতে পারে, যা অনিয়মিত পিরিয়ডকেও সাহায্য করবে। ওজন কমানোর দ্বারা, আপনার শরীরে বেশি ইনসুলিন উৎপাদনের প্রয়োজন হবেনা, যা টেষ্টোস্টেরণ হ্রাস করবে এবং আপনার ডিম্বোস্ফটন উন্নত হবে।

পলিসিস্টিক ডিম্বাশয় সিন্ড্রোম এর জন্য আরও চিকিৎসার মধ্যে রয়েছে হরমোন চিকিৎসা এবং ডায়াবেটিস ওষধ।

থাইরয়েড এর চিকিৎসা

থাইরয়েড সমস্যার জন্য চিকিৎসা করা যেতে পারে, যার উদ্দেশ্য হল, আপনার রক্তে থাইরয়েড হরমোনের মাত্রা স্বাভাবিক পর্যায়ে রাখা।

আপনার ওষুধ নিতে হতে পারে যাতে আপনার থাইরয়েড গ্রন্থি বেশি পরিমানে হরমোন    (হাইপোথাইরোডিসম ) অথবা অন্যান্য হরমোন উৎপাদন করতে না পারে।

চিকিৎসার পর আপনার মাসিকচক্র স্বাভাবিক হওয়া উচিৎ। যদি তা না হয়, তবে ডাক্তার দেখান।

কাউন্সেলিং এবং চাপ পরিচালনা

চাপ এবং হঠাৎ ওজন কমে যাওয়ার ফলে অনিয়মিত পিরিয়ড হতে পারে, বলে নির্ণয় করা হয়ে থাকে। বিশ্রাম নেয়ার কৌশল, চাপ পরিচালনা অথবা কাউন্সেলিং সুপারিশ করা যেতে পারে।

0 comments

Leave a Reply